শুল্ক ছাড়াই বিমানে আনতে পারেন যেসব পণ্য

শুল্ক ছাড়াই বিমানে আনতে পারেন যেসব পণ্য

আলোকিতবিডি২৪: ভ্রমণে গেলে বিদেশ থেকে অনেকে নানা ধরনের শখের বা প্রয়োজনীয় পণ্য আনতে চান। কিন্তু শুল্কসহ বিভিন্ন জটিলতায় অনেক সময় সমস্যা দেখা দেয়। তবে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের নির্ধারিত ছক অনুযায়ী প্রায় ৩৩টি পণ্য রয়েছে যা নির্দিষ্ট পরিমাণ আনলে শুল্ক দিতে হয় না।

শুল্ক ছাড়া নির্দিষ্ট পরিমাণ আনা যায় ৩৩ পণ্য-

১. ১০০ গ্রাম স্বর্ণালঙ্কার।
২. ২০০ গ্রাম রৌপ্যের অলঙ্কার।
৩. ২টি মোবাইল বা সেলুলার ফোনসেট।
৪. ক্যাসেট প্লেয়ার/টু-ইন ওয়ান।
৫. ডিস্কম্যান/ওয়াকম্যান (অডিও)।
৬. বহনযোগ্য অডিও সিডি প্লেয়ার।
৭. একটি ইউপিএসসহ ডেস্কটপ/ল্যাপটপ কম্পিউটার।
৮. কম্পিউটার স্ক্যানার।
৯. কম্পিউটার প্রিন্টার।
১০. ফ্যাক্স মেশিন।
১১. স্টিল ক্যামেরা বা ডিজিটাল ক্যামেরা।
১২. সাধারণ/পুশবাটন/কর্ডলেস টেলিফোনসেট।
১৩. সাধারণ বা ইলেকট্রিক ওভেন বা মাইক্রোওয়েভ ওভেন।
১৪. বার্নারসহ রাইস কুকার।
১৫. প্রেসার কুকার ও গ্যাস ওয়েন।
১৬. টোস্টার।
১৭. স্যান্ডউইচ মেকার।
১৮. ব্লেন্ডার।
১৯. ফুড প্রসেসর।
২০. জুসার ও কফিমেকার।
২১. সাধারণ ও বৈদ্যুতিক টাইপরাইটার।
২২. বৈদ্যুতিক ও ম্যানুয়াল গৃহস্থালী সেলাই মেশিন।
২৩. টেবিল।
২৪. প্যাডেস্টাল ফ্যান ও গৃহস্থালি সিলিং ফ্যান।
২৫. ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য স্পোর্টস সরঞ্জাম।
২৬. ২০০ শলাকার এক কার্টন সিগারেট।
২৭. ২১ ইঞ্চি পর্যন্ত প্লাজমা।
২৮. এলসিডি, টিএফটি ও এলইডি টিভি এবং ২৯ ইঞ্চি পর্যন্ত সিআরটি সাদা-কালো ও রঙিন টেলিভিশন।
২৯. ভিসিআর ও ভিসিপি।
৩০. সাধারণ সিপি ও দুটি স্পিকারসহ কম্পোন্যান্ট।
৩১. চার স্পিকারসহ কম্পোন্যান্ট।
৩২. ১৯ ইঞ্চি এলসিডি কম্পিউটার মনিটর।
৩৩. ভিডিও ক্যামেরা।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ জাতীয় রাজস্ব বোর্ড থেকে জারি করা যাত্রী (অপর্যটক) ব্যাগেজ (আমদানি) বিধিমালায়-২০১৬ প্রজ্ঞাপনে এসব তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে।

যাত্রীর পেশাগত কাজে ব্যবহার্য ও সহজে বহনযোগ্য যন্ত্রপাতি শুল্ক ছাড়াই আমদানি করতে পারবেন। আকাশ ও জলপথে আসা ১২ বছর বা তার চেয়ে বেশি বয়সের যাত্রীর সঙ্গে হাতব্যাগ, কেবিনব্যাগ ও অন্যবিধ উপায়ে আনীত ৬৫ কেজি ওজন পর্যন্ত ব্যাগেজ বহন করতে পারবে।